ত্রিপুরা

বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উপর পুলিশের‌ লাঠিচার্জকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা সৃষ্টি বিলোনিয়াতে।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক,ত্রিপুরা : ভারতের ছাত্র ফেডারেশন প্রতিষ্ঠার সুবর্ন জয়ন্তী বর্ষ উপলক্ষে দক্ষিন ত্রিপুরা জেলা বিলোনিয়া বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উপর পুলিশের‌ ধস্তাধস্তি ও লাঠিচার্জকে কেন্দ্র করে সাময়িক উত্তেজনা সৃষ্টি হয় বিলোনিয়াতে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে নেতৃত্বরা। পুলিশের এধরনের ভূমিকায় ছিঃ ছিঃ রব উঠেছে মহকুমা জুড়ে।পাশাপাশি পুলিশের দ্বিচারিতা ভূমিকায় সর্বত্র ধিক্কার , নিন্দায় সরব হয়েছে শুভবুদ্ধি সম্পন্ন জনগন । ২৪শে ডিসেম্বর ভারতের ছাত্র ফেডারেশন প্রতিষ্ঠার সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ । বিলোনিয়া বিভাগীয় এসএফআই ও টিএসইউ বামপন্থী দুই ছাত্র সংগঠন প্রতিষ্ঠার সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষকে সামনে রেখে বিলোনিয়াতে শোভাযাত্রার কর্মসুচি করার উদ্যোগ গ্ৰহন করে বৃহস্পতিবার । সেই মোতাবেক বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্র নেতা কর্মীরা হাজির হয় সিপিআইএম বিলোনিয়া বিভাগীয় অফিসের সামনে । নির্দিষ্ট সময়সুচি অনুযায়ি বেলা এগারোটা নাগাদ পার্টি অফিস থেকে সুসজ্জিত শোভাযাত্রা নিয়ে বের হয়ে ব্যাঙ্ক রোডের সামনে আসতেই পুলিশ ব্যারিকেড দিয়ে ফেলে শোভাযাত্রা মিছিল । চলে পুলিশের সাথে তাদের ধস্তাধস্তি । পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙ্গে মিছিল নিয়ে এক নাম্বার টিলার সামনে থেকে শোভাযাত্রার মিছিল মোর নিতেই পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে । লাঠিচার্জ এর ফলে শোভাযাত্রায় অংশ গ্ৰহনকারীরা অল্পবিস্তর আহত হয় বলে অভিযোগ সিপিআইএম এর নেতৃত্বদের । এই লাঠিচার্জ এর ফলে সৃষ্টি হয় উত্তেজনা । শোভাযাত্রা মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা ক্ষোভে রাজপথে বসে অবরোধ করে রাখে রাস্তা । সাময়িক কিছুক্ষনের জন্য বন্ধ হয়ে যায় দূরপাল্লার গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে রাস্তায় । শান্তিপূর্ণ শোভাযাত্রা মিছিলের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ কোনভাবেই মেনে নিতে পারেনি শহরবাসীরা । প্রত্যক্ষ দর্শীদের মধ্য থেকে অভিমত আজকের এই অনভিপ্রেত ঘটনার জন্য এক টিএসআর জওয়ান দায়ী । শান্তিপূর্ণ শোভাযাত্রা মিছিলকে অশান্ত ও বানচাল করার উদ্দেশ্য ছিল এই টিএসআর জোয়ানের । দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার , মহকুমা আধিকারিক , থানার ওসির নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ ও টিএসআর বাহিনী রনংদেহি মনোভাবে সজ্জিত ছিল । পাশাপাশি এই অনভিপ্রেত ঘটনা নিয়ে প্রাক্তন অর্থ ও স্বাস্থ্য দপ্তরের মন্ত্রী তথা বিরোধী দলের উপদলীয় নেতা বাদল চৌধুরী সহ বিধায়ক সুধন দাসের কথা পর্যন্ত শুনতে চাননি দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার । অবশেষে সিপিআইএম নেতৃত্বরা মাঠে নেমে পরিস্থিতি সামাল দেয় । রাস্তা অবরোধ স্থলেই প্রাক্তন অর্থ ও স্বাস্থ্য দপ্তরের মন্ত্রী তথা বিরোধী দলের উপদলীয় নেতা বাদল চৌধুরী সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বলেন পুলিশের অনুমতি নিয়েই শোভাযাত্রার মিছিল বের হয় । অনুমতি থাকা সত্ত্বেও কেন পুলিশের বাধা এবং লাঠিচার্জ তা প্রশ্ন তুলেন । এধরনের ঘটনা উস্কানিমূলক বলে অভিযোগ করে বলেন এব্যাপারে দক্ষিণ ত্রিপুরা জেলা পুলিশ সুপার এর নিকট অভিযোগ জানানো হবে বলে তিনি বলেছেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 − five =

Back to top button