ত্রিপুরা

কৃষি বিল নিয়ে রাজনীতি করার জন্য কৃষক আন্দোলনের নামে দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করা হচ্ছে:প্রতিমা ভৌমিক।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক,ত্রিপুরা : কৃষকদের নিয়ে গোটা দেশজুড়ে বিভ্রান্তিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে আগরতলা কৃষ্ণনগরস্থিত ত্রিপুরা প্রদেশ বিজেপি কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে করে একথা বলেন পশ্চিম ত্রিপুরা জেলার সাংসদ তথা কেন্দ্রের খাদ্য জনসংভরণ ও ভুক্তা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যা শ্রীমতি প্রতিমা ভৌমিক। কৃষকদের কৃষি বিল নিয়ে কিছু রাজনৈতিক দল এবং সংগঠন এই বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে। ভারতবর্ষ কৃষি প্রধান দেশ। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করার বিষয়ে বেশ কয়েক বছর ধরেই উদ্যোগী হয়েছিলেন। ত্রিপুরা রাজ্যে ৪০ বছরের কংগ্রেস ও বামফ্রন্ট শাসনের মধ্যে কৃষিজীবীদের জন্য কোন উল্লেখযোগ্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। বিরোধী দলগুলি কৃষকদের নিয়ে আন্দোলন করিয়ে তাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। যেখানে কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের সহায়ক মূল্য ১৭.৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে সেখানে ত্রিপুরা রাজ্যে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকার ১৮.১৫ টাকা সহায়ক মূল্য প্রদানের বিষয়ে আশ্বস্ত করেছে। বর্তমান সময়ে এই সহায়ক মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে ১৮.৬৮ টাকা হবে। কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করতে হবে। এই ভাবনা বিগত তিন বছরের মধ্যে বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে দেশের ৮৬ লক্ষ ৪৫ হাজারের বেশী কৃষক উপকৃত হয়েছে। রাজ্যে ৬০০০ টাকা করে ২৭৭৩৫ জন কৃষকের ব্যাংক একাউন্টে ২২৯ কোটি টাকা প্রদান করা হয়েছে। প্রতিটি কৃষক নিজেদের মর্জিমতো খাদ্যশস্য ও বিক্রি করতে পারছেন। কৃষি বিল নিয়ে রাজনীতি করার জন্য কৃষক আন্দোলনের নামে দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করা হচ্ছে বলে জানান সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক। রাজনীতিতে চমকানোর জন্য নোংরা খেলায় মেতেছে কংগ্রেস ও সিপিআইএম দল।আগামী ১৬ই ডিসেম্বর ২০২০ কৃষিবিল এর সমর্থনে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব এর উপস্থিতিতে আগরতলা রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনের সামনে কৃষি আইনের পক্ষে জনমত তৈরিতে এক বিশাল সমাবেশ সংঘটিত হবে বলে জানান সাংসদ প্রতিমা ভৌমিক।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =

Back to top button