ত্রিপুরা

পণের জন্য গৃহবধূকে দা দিয়ে কুপিয়ে মারার অভিযোগ স্বামীর বিরূদ্ধে।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক,ত্রিপুরা : আবারও পনের জন্য ঝর্না দে ঘোষ নামে এক গৃহবধূকে দা দিয়ে কুপিয়ে মারার অভিযোগ নেশাগ্রস্থ স্বামী রূপক ঘোষের বিরূদ্ধে। ঘটনার বিবরনে প্রকাশ,আজ থেকে প্রায় ১০ বছর আগে দক্ষিন ত্রিপুরা বিলোনীয়া রাধানগরের বাসিন্দা ঝর্না দে এর বিয়ে হয়েছিল সামাজিক রীতিনীতি মেনে গোমতী জেলা উদয়পুর টেপানিয়ার বাসিন্দা রূপক ঘোষের সাথে। বিয়ের ৫ বছর ভালোভাবেই তাদের জীবনযাপন চলছিল। তারপর থেকেই পনের জন্য স্বামী রূপক ঘোষ স্ত্রী ঝর্না দে ঘোষের উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে। সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাতে প্রচণ্ড নেশা করে টাকার জন্য স্ত্রী ঝর্না দে ঘোষকে প্রচণ্ড মারধোর করে তাকে দা দিয়ে গুরুতরভাবে কুপিয়ে মেরে ফেলেন নেশাগ্রস্থ স্বামী রূপক ঘোষ। ঘটনাটি ঘটেছে গোমতী জেলা উদয়পুর টেপানিয়া আর কে পুর হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায়। মৃত গৃহবধূর মা-বাবা ভাই এই খবর পেয়ে গোমতী জেলা উদয়পুর আর কে পুর থানায় মামলা করেছেন স্বামী রূপক ঘোষের বিরুদ্ধে। কিন্তু আর কে পুর থানার পুলিশ এখনো পর্যন্ত অভিযুক্তকে খুঁজে পায়নি বলে জানা গেছে। মৃত গৃহবধূর মা, বাবা, ভাই বিচারের আশায়, সুষ্ঠু তদন্তের আশায় সাংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × four =

Back to top button