রাজ্য

দুষ্ট গরুর দরকার নেই, বরং গোয়াল শূন্য থাকাই ভাল : মমতা বন্দোপাধ্যায়।

নিউস বেঙ্গল 365, নিউসডেস্ক: সামনে নির্বাচন, কোমর কোষে ময়দানে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বিজেপি। নিত্যদিন রাজ্যে হাজির করছে হেভিওয়েট নেতা মন্ত্রীদের। কিন্তু তৃণমূলীদের ভরসা সেই তাঁদের ‘নেত্রী’ মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি তাঁর নিজস্ব ঢঙেই উদ্দীপ্ত করছেন দলীয় কর্মীদের। কখনো রাগ করে বা কখনো মজার ছলে  তাঁর ভাষণ শুনতেন নেতা কর্মীরা। শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়রা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন সভায় ‘দল বদল’ নিয়ে সুর চড়াচ্ছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। কিন্ত মঙ্গলবার  কালনার জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মুখ দিয়ে ঝরে পড়লো একরাশ অভিমান ভরা বক্তব্য। তিনি সদ্য দলত্যাগীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘মা ছেলেদের খাইয়ে পরিয়ে লালন পালন করবে। আর তারপর মা যখন অসুস্থ হয়ে পড়বে বা মায়ের যখন কিছু প্রয়োজন পড়বে তখন তুমি মাকে বিট্রে করে পালিয়ে যাবে। এ সন্তান কু-সন্তান, সু-সন্তান নয়।’ তিনি আরো বলেন, ‘তৃণমূলের কেউ অন্যায় করলে আমি কানটা মুলে দেব বা থাপ্পড় মারব। বলব কেন অন্যায় করছ। কিন্তু কেউ যেন আমাকে ভুল না বোঝেন।’দুষ্ট গরুর দরকার নেই। বরং গোয়াল শূন্য থাকাই ভাল। মঙ্গলবার কালনার জনসভা থেকে দলত্যাগীদের উদ্দেশে এমনই বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘আমরা বলি দুষ্ট গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ভাল। কয়েকটা দুষ্টু গরু ঘেউ ঘেউ করতে করতে, ঘেউ ঘেউ না হাম্বা হাম্বা ডাকতে ডাকতে ইধার উধার করে বেড়াচ্ছেন। নিজেদের দুর্নীতি চাপা দিতে চাইছেন। এরা গিয়েছে ভালই হয়েছে। পাপ বিদায় নিয়েছে।’

মুখ্যমন্ত্রী এদিন কালনার জনসভা থেকে বিজেপির উদ্দেশ্যে সুর চড়িয়ে বলেন, ‘বিজেপি গোজামিল পার্টি, শুধু মিথ্যা কথা বলে। আমরা কৃষকদের চাল কিনি। শস্যবিমার পুরো টাকা দিই। কেন্দ্রের তিনটে কালো বিল কৃষকদের সব লুঠ করে নেবে। এই বিজেপি মানেই সর্বনাশ। কৃষক, শ্রমিক জোট বাঁধুন। কতগুলো বহিরাগত গুণ্ডা ভাবছে মিথ্যা কথা বলবে।’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরো বলেন, ‘ত্রিপুরার মানুষকে একটা কথা বলতে দেয় না, ধরে ধরে মারছে। বাঙালিকে অত্যাচার করছে। এখন এ রাজ্যে নিরাপত্তা আছে। বিজেপির রাজ্যগুলোয় কোনও নিরাপত্তা নেই। শান্তিতে থাকতে হলে তৃণমূলই আপনার বন্ধু।’ তিনি আরো বলেন, ‘বিজেপি তো এখানে এসে চৈতন্যের নামে ভুলভাল বলে গিয়েছিল। বিবেকানন্দের টাইটেল বলছে ঠাকুর। বিজেপির অনেক টাকা, তা নিয়ে চলে আসছে। ওটা ওদের টাকা নয় চুরি করা টাকা। ভাল করে টাকা নিয়ে মাংস ভাত খেয়ে নেবেন।’ এদিন কালনার মঞ্চ থেকে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নতুন ডাক, ‘বিদায় দাও বিদায় দাও বিজেপিকে বিদায় দাও, ফিরিয়ে দাও ফিরিয়ে দাও আমার দেশ ফিরিয়ে দাও, ভারতবর্ষ ফিরিয়ে দাও।’ মঙ্গলবার কালনার জনসভায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দেন প্রাক্তন আইপিএস হুমায়ুন কবীর। উল্লেখ্য  কিছুদিন আগেই চন্দননগরের পুলিশ কমিশনার পদ থেকে ইস্তফা দেন তিনি।  

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 2 =

Back to top button