রাজ্য

রাজ্যের ‘রাজনৈতিক’ মনোভাবের কারণে বঞ্চিত আসানসোল, এবার বেসুরো জিতেন্দ্র তেওয়ারি।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ দিন: শুভেন্দু- রাজীবের পর এবার জিতেন্দ্র তেওয়ারি। আসানসোলের উন্নয়ন নিয়ে তরজায় জড়ালেন জিতেন্দ্র-ফিরহাদ, যা নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তিতে তৃণমূল। আর এই অবস্থাতেই ফের সরাসরি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন আসানসোল পুরসভার প্রশাসক ও পান্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারি। রাজ্যের কারণেই কেন্দ্রের দেওয়া ৩৫০০ কোটি টাকা থেকে আসানসোল বঞ্চিত হচ্ছে এই  নিয়ে অভিযোগ তুলে  রীতিমত সামনা সামনি ‘যুদ্ধে’ ফিরহাদ-জিতেন্দ্র। আর এই বিদ্রোহের পিছনে বিজেপির ষড়যন্ত্র দেখতে পাচ্ছেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।  কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্য সরকারের বিরোধী রাজনীতির কারণে কেন্দ্রের প্রকল্প থেকে আসানসোল বঞ্চিত হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। এই মর্মে লিখিত আকারে ফিরহাদ হাকিমকে চিঠিও দেন। তাঁর অভিযোগ, মোদী সরকারের স্মার্ট সিটি প্রকল্পের টাকা আসানসোলকে নিতে দেয়নি রাজ্য সরকার। যার ফলে ২,০০০ কোটি টাকা। আর ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট এর ১৫০০ কোটি টাকাও পায়নি আসানসোল  পুরনিগমের মানুষ। এমনকী  সেই টাকার ক্ষতিপূরণের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা পূরণ করেননি পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।এই প্রসঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, “এই ধরণের চিঠি দেওয়া অত্যন্ত খারাপ কাজ।  আমার সঙ্গে ওর খুবই ভালো সম্পর্ক রয়েছে। এই সবের পিছনে বিজেপি রয়েছে। বিজেপি চক্রান্ত করে এই ধরণের কাজ করাচ্ছে।” তবে  মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের মন্তব্যের পালটা জবাব দিতে দেরী করেন নি। জিতেন্দ্র তিওয়ারি। তিনি বলেছেন, “আমি আমার রাজ্যের মন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছি। এতে সমস্যা কোথায়?।আমার সঙ্গে বিজেপির কোনও সম্পর্ক নেই। উনি কি জাদুকর? ওনা(ফিরহাদ হাকিম)র সঙ্গে বিজেপির যোগ থাকতে পারে, আমার সঙ্গে নেই।” আর এই ইস্যু হাতে আসতেই তেরেফুড়ে ময্দানে নামে বিজেপি।।আসানসোলের সাংসদ   বাবুল সুপ্রিয় বলেছেন, “সাহসের পরিচয় দিয়েছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। আগেও এবিষয়ে একাধিকবার ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি লিখেছি। কাজের কাজ কিছু হয়নি।”  পাশাপাশি রানিগঞ্জ গার্লস কলেজ ও রানিগঞ্জ টিডিবি কলেজ এর গভর্নিং বডি থেকেও ইস্তফা দিয়েছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। তবে কীভাবে রাজ্যের মন্ত্রীকে দেওয়া চিঠি ফাস হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন জিতেন্দ্র। তার মতে,” আমাদের নেতা-মন্ত্রীরাই চাইছেন যেন বিজেপি সুবিধা পায়। নয়ত মন্ত্রীকে লেখা গোপন চিঠি কীভাবে বিজেপি সাংসদ পান?”

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 5 =

Back to top button