রাজ্য

১৯ নভেম্বর রামনগর আরএস ময়দানে ‘অনেক কথা’ বলবেন শুভেন্দু।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : শুভেন্দুর বদলে জেলায় অধিকারীদের কট্টর বিরোধী অখিল গিরির উপর ভরসা রেখেছিল তৃণমূল। আর খানিকটা সেখান থেকেই দলের সঙ্গে দুরত্ব তৈরী হয় শুভেন্দু অধিকারীর। এবার সেই অখিল গড়েই নাম না করে ফের তৃণমূলকে বিধলেন পরিবহণ মন্ত্রী। আর এবার তার আক্রমনের হাতিয়ার হরিশচন্দ্র মিত্রের লেখা কবিতা। শনিবার অখিল গিরির রামনগরে এসে  কবিতার এই দুটি পংক্তিতেই বুঝিয়ে দিলেন তৃণমূলের সঙ্গে তার দূরত্ব। এদিন তিনি শুরু করেন “আপনারে বড় বলে, বড় সেই নয় /‌ লোকে যারে বড় বলে, বড় সেই হয়’‌ এই কবিতা দিয়েই। রাজনৈতিক মহলের মতে,  তাকে ” তুই-তোকারি” করে অশালীনভাষায় আক্রমণ করা শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দপাধ্যায়-এর কথার জবাব দিলেন শুভেন্দু অধিকারী।  শনিবার রামনগরে বন্ধুমহল ক্লাবের কালীপুজোর উদ্বোধন করেন শুভেন্দু। সেই অনুষ্ঠানে তৃণমূল বিধায়ক অখিল গিরির নাম থাকলেও আসেননি তিনি। আর নিজের এলাকার কালী পুজোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকা অখিল গিরির নাম না করে শুভেন্দুর চোখা আক্রমণ— ‘‌কেউ কেউ আবার আসতে পারেন না, তাঁদের অনেক সমস্যা। তাঁরাও আমার খুব পরিচিত। তাঁদেরও উপকারে অনেক সময় লেগেছি।’ এদিন ‌অনেকটাই হালকা মেজাজে  ছিলেন  মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। সকলের সঙ্গে  ঢাক বাজানোর পাশাপাশি। মঞ্চে উঠে পাশে থাকার বার্তাও দেন  তিনি। বলেন, ‘‌ভাল সময়ে কম আসি। খারাপ সময়ে শুভেন্দু কিন্তু পাশে থাকবে।’‌ রামনগর নিয়ে তাকে কিছু বলতে অনুরোধ করা হলে তিনি বলেন, ‌‘‌আমায় বলছে রামনগর নিয়ে কিছু বলুন। যা বলতে হয় তা করতে নেই। যা করতে হয় তা বলতে নেই। আমার মাথায় আছে আমায় কী করতে হবে। যথা সময়ে সেটা রামনগরের জন্য আমি করব।’‌ তার রাজনৈতিক অবস্থান কী, তা নিয়ে এখনও ধোয়াশা কাটেনি। অনেকেরই ধারণা ছিল, ১০ তারিখ নন্দীগ্রাম দিবসে খোলসা করে তার অবস্থান স্পষ্ট করবেন তিনি। কিন্ত সেদিন “ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটি”র অরাজনৈতিক মঞ্চ থেকে কোনও  রাজনৈতিক মন্তব্য করবেন না বলে জানান তিনি। তবে এদিন  শুভেন্দু তাঁর পরবর্তী বড় কর্মসূচির স্থান–কাল–পাত্র ঘোষণা করেন। এদিন সকলকে ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানিয়ে তিনি জানান, ‘‌১৯ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার রামনগর আরএস ময়দানে আমার একটি মেগা শো আছে।  ওখানে অনেক কথা বলব। অনেক সময় থাকবে হাতে। অনেক কথা বলার সুযোগ পাব।’‌ এদিন অনুষ্ঠানে সকলকে কালীপুজো ও দীপাবলির শুভেচ্ছা জানান শুভেন্দু। অপরদিকে রামনগর থেকে এদিন শুভেন্দু অধিকারীর এই ঘোষণার পরেই, রামনগরের তৃণমূল বিধায়ক অখিল গিরি মন্তব্য করেন, “দলের তরফে শুভেন্দু অধিকারীকে ৭ দিনের চরম বার্তা দেওয়া হয়েছে। উনি নিজের অবস্থান স্পষ্ট না করলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে”। 

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + eleven =

Back to top button