রাজ্য

অসম্পুর্ণ রাস্তা উদ্বোধনে এসে দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভে পালিয়ে বাচলেন বিধায়ক।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: শেষ হয়নি রাস্তার কাজ, তার আগেই তড়িঘড়ি তা উদ্বোধনে এসে শেষ পর্যন্ত দলীয় কর্মীদেরই বিক্ষোভের মুখে পালিয়ে গেলেন তৃণমূল বিধায়ক!‌ অসমাপ্তই রয়ে গেল পথশ্রী অভিযান। পথে নেমেছিলেন। কিন্তু সেই  পথে যে এত বাধা, তা হয়ত  বুঝতে পারেননি ডেবরার তৃণমূল বিধায়ক সেলিমা খাতুন। আর তাই পালিয়েই শেষ পর্যন্ত  মান বাচালেন তিনি। উত্তরবঙ্গে  ১২ হাজার কিলোমিটার গ্রামীণ রাস্তার উন্নয়নে পথশ্রী অভিযানের সূচনা   সূচনা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী । সেই প্রকল্পের উদ্বোধনে এসে তৃণমূল কর্মীদেরই ক্ষোভ–বিক্ষোভ–হেনস্থার মুখে পড়তে হবে, তা ঘূণাক্ষরে টেরও পাননি ওই বিধায়ক।  তাই পথে নেমে পরিস্থিতি ঘোরালো দেখে শেষ পর্যন্ত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হলেন বিধায়ক সেলিমা খাতুন। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা বিধানসভায়। এখানকার ৪ নম্বর খানামোহান অঞ্চলের পশ্চিমলহনা বাজারে। আর এই ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় চাউর হতে তিনি বেশ অস্বস্তিতে পড়ে যান। আগামী ১৫ দিন রাজ্যজুড়ে রাস্তার উদ্বোধন করার কথা স্থানীয় বিধায়ক, বিডিও এবং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি–সহ অনান্যদের। তাই পশ্চিমলহনা এলাকায় নতুন রাস্তা উদ্বোধনে যান ডেবরার বিধায়ক সেলিমা খাতুন বিবি। আর সেখানেই দলীয় কর্মীদের হেনস্থার মুখে পড়েন তিনি। চেষ্টা করেছিলেন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে। কিন্তু তা না হওয়ায় অবশেষে এলাকা ছাড়েন বিধায়ক। দলীয় কর্মী ও স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘ দিন ধরে এলাকার রাস্তাগুলি ভগ্ন অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সেগুলির মেরামতির কাজ না করে উলটে নতুন রাস্তা উদ্বোধন হচ্ছে। যা কিনা সম্পূর্ণ নয়। এলাকাবাসীর দাবি, আগে রাস্তা সম্পূর্ণ হোক। তারপর তো উদ্বোধন হবে। বিক্ষোভের থামাতে ঘটনাস্থলে আসে ডেবরা থানার পুলিশ। তবে তাতে কোনও লাভ হয় না। বেগতিক দেখে শেষমেশ এলাকা ছাড়তে হয় বিধায়ক সেলিমা খাতুন বিবিকে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button