রাজ্য

করোনার ছোবলে প্রাণ হারালেন ‘নৈহাটির বিধান রায়’ হিরন্ময় ভট্টাচার্য।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : ভিজিট নিতেন ৫ টাকা।  নাড়ি টিপে দেখে কম  ওষুধ দিয়ে রোগীকে সুস্থ করতেন।  আর তাই   স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে তিনি ছিলেন  নৈহাটির ‘বিধান রায়’।  কিন্তু  কোভিড কেড়ে নিল প্রাণ। করোনার  ছোবলে প্রাণ হারালেন উত্তর ২৪ পরগনার ‘নৈহাটির বিধান রায়’  হিরন্ময় ভট্টাচার্য। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। পাঁচ টাকার ডাক্তার  হিসাবে নৈহাটির  পাশাপাশি গোটা ব্যারাকপুর মহকুমায় পরিচিত ছিলেন তিনি। মূলত চেস্ট স্পেশালিস্ট হলেও জেনারেল ফিজিশিয়ান হিসাবে সাধারণ গরীব রোগীদের কাছে ‘ভগবান’ ছিলেন। শিশু চিকিৎসাতেও তাঁর সুনাম ছিল। লকডাউন হওয়ার পর কোভিডের ভয়ে যখন কেউ রোগী দেখেননি তখনও তিনি নিয়মিত চেম্বার করতেন।  ফিরিয়ে দেননি একজন রোগীকেও। শনিবার রাতে তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে  বেলঘরিয়ার একটি নার্সিংহোমে ভরতি হয়েছিলেন। তার আগে ক’দিন ধরে জ্বর ছিল। সোমবার রাত ১০,৩০ নাগাদ পর পর দু’বার হার্ট অ্যাট্যাক হওয়ার ধাক্কা সামলাতে পারেননি প্রয়াত চিকিৎসক। দিন কয়েক আগে ব্যারাকপুর মহকুমারই শ্যামনগরে প্রদীপ কুমার ভট্টাচার্য নামে আরেক জনপ্রিয় চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়ে বাইপাসের মেডিকা হাসপাতালে প্রয়াত হন। তিনিও গরিবের ডাক্তার হিসাবে শ্যামনগরের মানুষের খুবই কাছের মানুষ ছিলেন। ১৯৭৮ সালে রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন থেকে মাধ্যমিক পাশ করা প্রয়াত হিরন্ময়বাবু আইএমএ রাজ্য শাখার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন।  এই নিয়ে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকজন ডাক্তার প্রাণ হারালেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button