রাজ্য

পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গরুর গাড়ি চড়ে অভিনব প্রচার শান্তিপুরের তৃণমূল প্রার্থীর।

মলয় দে নদীয়া:- নির্বাচন তার কাছে নতুন কিছু নয়! প্রথমে কংগ্রেস তারপর তৃণমূল! মিলিয়ে বার সাতেক নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন তিনি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অপরাজেয় শান্তিপুরের ভূমিপুত্র অজয় দে। ব্যতিক্রমী ছিলো গত বিধানসভা 2016, তৃণমূলের প্রতীক , দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা,লোকলস্কর সবকিছু থাকা সত্ত্বেও পরাজয় ঘটেছিলো হাঁটুর বয়সী বহিরাগত রাজ্য যুব কংগ্রেস সভাপতি অরিন্দম ভট্টাচার্যের কাছে। যদিও তার সমর্থকরা এ বিষয়ে বলেন , বিরোধী ভোটের একত্রীকরণের সমীকরণ কাজ করেছিলো এর পেছনে। এবার আবারো ভূমিপুত্র অজয় দে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী। পুরোনো নতুন বাম ডান বিজেপি সবটাই তার নখদর্পণে! পরিমার্জিত স্বল্পভাষী ব্যক্তিত্ব নিয়ে জল্পনা চলে রাজনৈতিক মহলে। সত্তরোর্ধ্ব প্রবীণ এই প্রার্থীর প্রচারে দেওয়াল লিখুন এবং কর্মী বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে অন্য প্রতিপক্ষদের অনেক আগেই। আজ শান্তিপুর বাবলা পঞ্চায়েতের গলায় দড়ি বটতলা থেকে কুন্ডুপাড়ার মেঠো পথ ধরে, কখনো পায়ে হেঁটে কখনো বা গরুর গাড়িতে চেপে প্রচার সারলেন তিনি। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, তার বিধানসভা কেন্দ্রের প্রধান প্রতিপক্ষ হিসেবে, রাজ্যের প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপিকেই দেখছেন তিনি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর অসংখ্য জীবনমুখী প্রকল্পে খুশি বিধানসভাবাসী। সঠিক সময়ে, মানুষের মানুষের বিবেক সৃষ্টি করা, পেট্রোল ডিজেল রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধিকারী, রেল বিমান কয়লাখনির মত লাভজনক সংস্থা বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে, কৃষক ও শ্রমিকের কর্মহীন করে দেওয়া বিজেপির বাংলা সংস্কৃতি বোঝে না, উগ্র ধর্মীয় বিষয়ে সুড়সুড়ি দিয়ে ভোট করাতে চাইছে ! মানুষ এর যোগ্য জবাব দেবে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − fifteen =

Back to top button