রাজ্য

অর্জুন, শুভেন্দুর আগমনে নদিয়ায় গেরুয়া ঝড়।

মলয় দে, নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫, নদীয়া:- নদিয়ার বীরনগর শহর মন্ডলের পক্ষ্য থেকে বীরনগর উলা পাঠাগারে বিজেপির এক প্রকাশ্য জনসভা অনুষ্ঠিত হয়ে গেল। এদিন প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী ও সাংসদ অর্জুন সিং, রানাঘাটের সাংসদ জগন্নাথ সরকার, অনল বিশ্বাস সহ অন্যন্য নেতৃত্ব। এদিন বক্তৃতা রাখতে গিয়ে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং কয়লা চোরের প্রসংগ তুলে ধরে বলেন, ‘দিদিমনি আপনাকে রহস্য খুলতে হবে। মিথ্যা কথা বলছেন রাজ্যের মানুষকে। বিদেশের ব্যাংকে একজনের বাবা দুজন কেনো? ভাইপোর বউ ফেক আকাউন্ট খুলেছে। সেই আকাউন্ট খুলে বাংলা থেকে কোটি কোটি টাকা বিদেশের ব্যাংকে রেখেছেন। এই টাকা থাইল্যান্ডের ব্যাংকে পাঠিয়েছেন। বাংলার মানুষের টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশের ব্যাংকে রেখেছেন।মমতা ব্যানার্জি পশ্চিমবাংলায় লুটে পুটে খাচ্ছে।’ অর্জুন বাবু আরো বলেন, ‘বামপন্থীদের সাথে আমরা একটা লড়াই করে বেকারদের কর্মসংস্থান ও নারীদের সন্মান দেবার চেস্টা করেছি এই বাংলায়। পিসি ভাইপোর প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানী হয়ে গেলো। বাংলার মানুষ বুঝে গেছে।নির্বাচনের আগে দিদি ও ভাইপো বক্তৃতা রাখতে গিয়ে ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন। বাংলার সংস্কৃতি নস্ট করছেন, যেভাবে দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে সর্বভারতীয় বিজেপির সভাপতিকে অপমানজনক কথা বলছেন তা খুবই খারাপ।’ এর পাশাপাশি বীরনগরে বিজেপির সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, মাননীয়া ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে বুদ্ধি কিনছেন। আর বহিরাগত বলতে বলতে সেদিন তো ব্যাটারি চালিত স্কুটি চালাচ্ছিলেন, সেই স্কুটি নরেন্দ্র মোদীর গুজরাটে তৈরী হচ্ছে। আর সেই গাড়ির রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রের সরকার দেয়। তৃনমুলের বড় বড় ফ্ল্যাগ ফেস্টুন, ব্যানার সব আমেদাবাদে হয়, এরাজ্যে কেনো হয় না?’ এদিন শুভেন্দুবাবু মমতা ব্যানার্জী ও অভিষেক ব্যানার্জীর নাম না করে আক্রমন করে বলেন, ‘দিদিমনির তোলাবাজ ভাইপো মেদিনীপুরের ঘাটালে রোড শো করতে এসেছিলেন, আমি ওই ভাইপোকে একটা তোলাবাজ ভুত বলে আক্ষা দিলাম।’ আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের কাজ শুরু হয়ে গেছে এবারে আপনাদের এই দিদি-ভাইপোর সরকারকে বিদায় দিতে হবে বলে কর্মীদের বার্তা দেন। শুভেন্দু বলেন, ‘মোদীজি চাইছেন কেন্দ্রের সরকারের পাশাপাশি গনতান্ত্রিক পদ্ধতিতে বাংলার মসনদে বসতে। আর সেই জন্য এই ডবল ইঞ্জিনের সরকার দরকার।’

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − fourteen =

Back to top button