অন্যান্য

-: অমৃতকথা :-

বাংলা দিনপঞ্জী : সুপ্রভাত, আজ ৪ঠা পৌষ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (১৮৫ রামকৃষ্ণাব্দ) রবিবার (ইং : ২০শে ডিসেম্বর ২০২০) ।তিথি : আজ চান্দ্র অগ্রহায়ণ (মার্গশীর্ষ) শুক্লা ষষ্ঠী সন্ধ্যা ৫।৪১ পর্যন্ত।              

-: অমৃতকথা :-  “ঠাকুর (রামকৃষ্ণদেব) ব্যাখ্যা করছেন – যাদের চৈতন্য হয়েছে, যাদের ঈশ্বর সৎ আর সব অসৎ অনিত্য বলে ভাব হয়েছে তাদের আর এক রকম ভাব । তারা জানে যে ঈশ্বরই একমাত্র কর্তা, আর সব অকর্তা। এই জ্ঞানের নামই প্রজ্ঞান । পৃথিবী পালটাবে না। যা আছে তাই থাকবে। পালটাও নিজেকে। অজ্ঞান থেকে জ্ঞানে। জ্ঞান থেকে বিজ্ঞানে। বিজ্ঞান থেকে প্রজ্ঞানে। সানন্দে বাঁচার কৌশল আছে আমার ঠাকুরের কাছে। চৈতন্য হলে কি হয় ? (১) বেতালে পা পড়ে না, (২) হিসাব করে পাপ ত্যাগ করতে হয় না, ঈশ্বরের উপর এত ভালোবাসা যে, যে কর্ম তারা করে সেই কর্মই সৎকর্ম, (৩) সেই বোধ আগে, সমস্ত কর্মের কর্তা আমি নই, আমি ঈশ্বের দাস। আমি যন্ত্র, তিনি যন্ত্রী। তিনি যেমন করান তেমনি করি, যেমন বলান তেমনি বলি, যেমন চালান তেমনি চলি। ঠাকুর আমার মত চিরকালের গৃহীর চিরগুরু। সংসারে আছি পূর্ণ বিশ্বাসে তাঁকে আমার হাতটি ধরিয়ে যাতে অন্ধকারে আলের পথে চলতে গিয়ে পড়ে না যাই। জমিদার পৃথিবী মারবে মারুক, যাঁর পৃথিবী তিনি এসে বাতাস করে দুধ খাওয়াবেন ।” (সমাপ্ত)   – সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়ের পরমপদকমলে গ্রন্থের চিরগুরু প্রবন্ধ থেকে সঙ্কলিত – আজ পঞ্চম এবং শেষ পর্ব নিবেদিত হলো ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × four =

Back to top button