অন্যান্য

শ্রীশ্রীলক্ষ্মীর পাঁচকাহন

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক :- 
💠লক্ষ্মীপূজার সাধারণ কিছু বিষয়ঃ
👣মা লক্ষ্মীর পুজোর সময় কোনও ভাবেই লোহার তৈরি বাসন ব্যবহার করা যাবে না। অর্থাৎ, স্টিল, অ্যালুমিনিয়াম ইত‍্যাদি। কাঁসা-পিতল-তামা-কলাপাতা এগুলো সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ।
👣লক্ষ্মী দেবীকে কোনও ভাবে সাদা রঙের ফুল অর্পণ করা যাবে না। সাদা রঙ ছাড়া লাল, হলুদ, গোলাপি রঙের ফুল ব্যবহার করা যাবে। পদ্ম-করবী-চাঁপা-তিলফুল-কদম-কেতকী সবচেয়ে শ্রেয়। কোনোভাবেই আকন্দ ধুতরা দেবেন না। লক্ষ্মী দেবীর পুজোর সময় কোনও ভাবে তুলসী পাতা দেওয়া যাবে না। তবে নারায়ণের যখন পূজা হবে তখন সচন্দন তুলসী দিতে হবে। 
👣মা লক্ষ্মীর আসনে সাদা বা কালো কাপড় পাততে নেই, লাল, গোলাপি প্রভৃতি রঙের কাপড় ব্যবহার করতে হবে। এতে মা লক্ষ্মী অত্যন্ত সন্তুষ্ট হন।
👣লক্ষ্মী পুজোর দিন কোনও ভাবে বাড়ি থেকে অন্য কাউকে চাল দিতে নেই।
👣সাধারণত প্রায় সব পুজোর সময়ই কাঁসর ঘণ্টা বাজানো হয় কিন্তু মা লক্ষ্মীর পুজোয় ভুল করেও কাঁসর ঘণ্টা বাজানো যাবে না। সন্ধ‍্যার সময় সবচেয়ে উত্তম ও শ্রেষ্ঠ কাল লক্ষ্মীপূজার।
👣লক্ষ্মী পুজো করার সময় নিজেকেও লাল, গোলাপি, হলুদ, কমলা এই ধরনের রঙের বস্ত্র পরতে হবে। সাদা বা কালো বস্ত্র একেবারেই পরা যাবে না।
👣কোজাগরী লক্ষ্মীপূজার দিনে ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালানো উচিৎ। সমস্ত রাত্রি ধরে অখন্ড ঘিয়ের প্রদীপ জ্বলবে।
👣দেবীর প্রিয় ফল হলো নারিকেল। তাই নারকেলের জল, নাড়ু নারকেল কোঁড়া, নারকেলের সন্দেশ ইত‍্যাদি নারকেল জাতীয় উপাদান নিবেদন করতে হবে। এছাড়াও সাদা তিল দেবীর প্রিয়। 
👣শঙ্খধ্বনি ছাড়া অন‍্য কোনো বাদ‍্যশব্দ ব‍্যবহার করা উচিৎ নয়। ধূপ ধূনোয় পূজার স্থান পরিপূর্ণ থাকবে। 
👣সাত্ত্বিক চিত্তে আনন্দ ভাবে মনকে স্থির করে দেবীলক্ষ্মীর পূজায় ব্রতী হতে হবে। মন চঞ্চল হলে লক্ষ্মীলাভ বড়ই কঠিন হয়ে যাবে। 
👣লক্ষ্মীপূজা করে নারায়ণ, ইন্দ্র, কুবের ও পেঁচকে পৃথকভাবে পূজা করতে হয়।
👣লক্ষ্মী কবচম্ / ধনলক্ষ্মী কবচম্ / সৌভাগ‍্যলক্ষ্মী কবচম্ পাঠ করা অবশ্যই কর্তব্য। 
👣পদ্মবীজের মালায় দেবীর নাম মন্ত্র জপ করুন। অথবা পদ্মবীজ মালা নিজে পড়ে পূজা করুন বা দেবীকে পড়ান।
👣সোনা, রূপো, মুক্তো, কড়ি, ধান, পান, সুপারি, গোটা কাঁচা হলুদ, পদ্ম ফুল, শঙ্খ, একচোখ বিশিষ্ট নারকেল, সিন্দুর কৌটা/সিন্দুর ঝাঁপি, ঘিয়ের প্রদীপ, এই সকল দ্রব‍্য একটি কাঁস‍্যপত্র বা বড় কলাপাতা সাজিয়ে প্রদীপটি সারা রাতের জন‍্য জ্বালিয়ে রাখবেন দেবীর নিকট। এগুলি দেবীর প্রতিটিই প্রিয় উপাদান।
👣সম্ভব হলে দেবীর সহিত শ্রীযন্ত্রম্ রেখে পূজা করুন। 
👣পূজার দিন।সকালে সমস্ত বাড়িতে গোবর জলের ছিটা দিয়ে আলপনা দিয়ে দিন সম্ভব মতো। তারপর সন্ধ‍্যায় দেবী আরাধনায় মনোনিবেশ করুন।।(সংগৃহীত)

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − nine =

Back to top button