অন্যান্য

-: অমৃতকথা :-

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক:বাংলা দিনপঞ্জী :সুপ্রভাত, আজ ১৪ই আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (১৮৫ রামকৃষ্ণাব্দ) বৃহস্পতিবার (ইং : ১লা অক্টোবর ২০২০) ।তিথি : আজ মল-আশ্বিন পূর্ণিমা রাত্রি ১।৩০ পর্যন্ত ।* আজ ডাঃ নীলরতন সরকারের জন্মদিন (জন্ম : ১লা অক্টোবর, ১৮৬১)* আজ আন্তর্জাতিক বর্ষীয়ান নাগরিক দিবস ।* আজ আন্তর্জাতিক রক্তদান দিবস ।
-: অমৃতকথা :-“হিন্দু – বহুদেবতার উপাসক । লক্ষ্মী, সরস্বতী, বিশ্বকর্ম্মা, বিষ্ণু, শিব, শীতলা, মনসা, দুর্গা, মঙ্গলচণ্ডী, ষষ্ঠী, কার্ত্তিকেয় আদি নানা দেবতার পূজারাধানা হিন্দুর ঘরে ঘরে প্রচলিত । উচ্চকোটি নিষ্কাম সাধকগণের কথা বলছি না । কিন্তু সাধারণ জনতা সকাম । তাঁরা এসকল দেবদেবীর আবাহন, অর্চ্চনা, স্তবন, বন্দনা করেন সাধারণতঃ কোনও না কোনও কামনার বশবর্ত্তী হয়ে – সে কামনা ব্যষ্টিগত বা সমষ্টিগত উভয়বিধই হতে পারে । লক্ষ্মীর উপাসনায় ধন, সরস্বতীর উপাসনায় বিদ্যা, বিশ্বকর্ম্মার উপাসনায় শিল্প, কার্ত্তিকেয়র উপাসনায় সুপ্রজা ও বিজয়, শীতলার উপাসনায় নিরাময় – এরূপ ব্যক্তিগত ও জাতীয় জীবনের নানা প্রয়োজনের প্রেরণায় মানুষ নানা দেবতার আরাধনায় ব্রতী হয় । বিচার করলে দেখা যাবে – এসব দেবদেবীর উপাসনার অর্থ হচ্ছে তা হতে ব্যক্তিগত ও জাতীয় জীবনের এক একটি বিশেষ বিশেষ সমস্যার সমাধানের ইঙ্গিত লাভ করা । সে ইঙ্গিত কোথায় লভ্য ? এক কথায় উত্তর – গণেশের পূজায় ।গণেশ হল গণশক্তি বা সমষ্টিশক্তির প্রতীক । … আগে গণশক্তিকে জাগাও, তাকে সুসংগঠিত কর, দেখবে – তোমার সকল আরম্ভ সুফলপ্রসু হতে চলেছে । আগে গণেশের পূজাটি ঠিক ঠিক সম্পাদিত হলে তবেই অন্যান্য দেবদেবীর পূজা সার্থক হয়। সকলের শক্তি যেখানে ঐক্যবদ্ধ, সেখানে পর্ব্বতপ্রমাণ বিঘ্নও নিমিষে অপসারিত, কঠিনতম কার্য্যও  অক্লেশে সুসিদ্ধ । গণশক্তির এ মহিমা প্রকটিত করার জন্যই গণেশকে বলা হয়েছে বিঘ্নেশ (বিঘ্ননাশন), এজন্যই তাঁকে বলা হয় সিদ্ধিদাতা এবং তাঁর পূজাটিও নির্দিষ্ট হয়েছে সকল দেবতার পূজার অগ্রে ।”স্বামী নির্ম্মলানন্দ রচিত ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ থেকে প্রকাশিত ‘দেবদেবী ও তাদের বাহন’ গ্রন্থ থেকে সঙ্কলিত ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button