কলকাতা

তৃণমূলের চাপ বাড়িয়ে ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে বৈঠক করলেন মিম প্রধান।

নিউজ বেঙ্গল 365, নিউজডেস্ক: আগামী একুশের নির্বাচনকে পাখির চোখ করে সব রাজনৈতিক দলগুলি উঠেপড়ে লেগেছে ঘর গোছাতে। বসে নেই মজলিস এ ইত্তেহাদ উল মুসলিমীন বা মিম। বাংলার নির্বাচনে অংশ নেবেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন মিম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়েইসি। রবিবার সেই উদ্দেশেই মিম প্রধান কলকাতায় পা দিয়েই সোজা চলে যান হুগলির ফুরফুরা শরীফে। সেখানে তিনি বেশ কিছুক্ষন বৈঠক করেন ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে। আসাউদ্দিন আসাউদ্দিন ওয়েইসি ও আব্বাস সিদ্দিকী দুজনেই তৃণমূল বিরোধী বলে পরিচিত। বেশ কিছুদিন আগে আব্বাস সিদ্দিকী জানিয়েছিলেন নতুন দল গড়ে একুশের নির্বাচনে লড়বেন। দুই চব্বিশ পরগনা, হাওড়া ও হুগলিতে আব্বাস সিদ্দিকীর জনপ্রিয়তা রয়েছে। মিম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়েইসি চাইছেন যাতে পীরজাদা আলাদা দল না গড়ে তাঁর দলে যোগ দিয়ে নির্বাচনে দাঁড়ান। ইতিমধ্যেই মিম হায়দ্রাবাদের সীমানা ছাড়িয়ে সর্বভারতীয় দলে পরিণত হয়েছে। সেই লক্ষ্যেই রবিবার সাংসদ আসাউদ্দিন আসাউদ্দিন ওয়েইসি কলকাতা পৌঁছেই সোজা চলে যান ফুরফুরা শরীফে আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে বৈঠক করতে। বৈঠক শেষে আসাউদ্দিন জানিয়েছেন,’আগামী নির্বাচনে পীরজাদা সিদ্দিকীর নেতৃত্বে মিম লড়বে। আব্বাস সিদ্দিকীর পাশে থাকবে মিম। আব্বাস সিদ্দিকী যে সিদ্ধান্ত নেবেন তা মিম সমর্থন করবে।’ তিনি বলেন,’আমরা রাজনৈতিক দল,বাংলায় নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে আমরা নির্বাচনে লড়বো।’ বিজেপির সুবিধা করে দিতে মিম নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছে তৃণমূলের এই দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে মিম প্রধান বলেন, ‘বিজেপির হাত শক্ত করেছে তৃণমূল।’ তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘যখন গুজরাট জ্বলছিল তখন মমতা ব্যানার্জী কোথায় ছিলেন।’ তিনি আরো বলেন,’সংখ্যালঘু ভোট কারোর জমিদারি নয়। মমতা ব্যানার্জী কখনো মুসলিমদের প্রকৃত উন্নয়ন করেননি।’

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × two =

Back to top button