কলকাতা

উধাও মুখ্যমন্ত্রীর ছবি, দলীয় প্রতীক, তবে কী শুভেন্দুর পথে রাজীব বন্দোপাধ্যায়ও?

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : শুভেন্দুর পর কী এবার রাজীব বন্দোপাধ্যায়ও? ইতিমধ্যেই রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে নানান জল্পনা তৈরী হয়েছে। একেরপর এক কর্মসূচীতে তার বক্তব্য নিয়ে তৃণমূলের অন্দরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এমনকী ১০ নভেম্বর তেখালীতে শুভেন্দুর  নন্দীগ্রাম দিবসের পাল্টা সভা করে তৃণমূল। হাজরাকাটার এই সভা থেকে নাম না করে আক্রমণ করা হয় শুভেন্দুর। তার আগে তেখালির সভা থেকে নাম না করে তৃণমূলকে নিশানা করেন পরিবহণ মন্ত্রী। এখানেই শেষ নয়, এরপর একেরপর এক সভা থেকে দুই তরফেই রীতিমতো যুদ্ধের ইঙ্গিত মিলেছে। কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়কে দেখা গিয়েছে কার্যত “তুই-তোকারি” করে আক্রমণ শানাতে। কড়া সতর্কবার্তা দিয়েছেন অখিল গিরি। ইতিমধ্যে “দাদার অনুগামী” নামে একাধিক কর্মসূচী নিচ্ছেন শুভেন্দু অনুগামীরা। তবে আপাতত তার কোন কর্মসূচীতেই থাকছে না দলীয় পতাকা। থাকছে না মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ছবিও। আর তাতেই প্রবল হচ্ছে শুভেন্দুর দল ছাড়ার সম্ভাবনা। এবার কী সেই তালিকায় যোগ হচ্ছেন রাজ্যে অন্যতম জনপ্রিয় মুখ বনমন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায়ও? ইতিমধ্যে একাধিক জেলায় তার ছবি দেওয়া ফ্লেক্স দেখা যাচ্ছে। অবাক কান্ড তাতেও নেই নেত্রী বা প্রতীকের ছবি। এমনকী সম্প্রতি মন্ত্রীসভার বৈঠকে  অনুপস্থিত ছিলেন তিনি। একইসঙ্গে অনুপস্থিত ছিলেন শুভেন্দুও। এই বৈঠকে না আসলেও অনুপস্থিতির কারণ জানিয়েছিলেন উত্তরবঙ্গে উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ও  করোনা আক্রান্ত পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। সূত্রের খবর, অনুপস্থিতির কোন কারণ দেখাননি রাজীব-শুভেন্দু। আর তারপর থেকেই শুরু হয়েছে জল্পনা। রাজনীতিতে এই শুভেন্দূ ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত।  এমনকী বিভিন্ন উৎসবে শুভেচ্ছা জানাতে যে কার্ড তিনি ব্যবহার করছেন, সেখান থেকেও উধাও মমতা বন্দোপাধ্যায় ও জোড়াফুলের ছবি। আর তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button