কলকাতা

একুশের আগে কর্মসংস্থানে জোর, কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : রাজ্যে পায়ের তলায় জমি শক্ত হচ্ছে গেরুয়া শিবির। কিছুটা হলেও আলগা হচ্ছে জোড়াফুল। আর তাই এবার ২১ কে সামনে রেখে কল্পতরু হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। বুধে নবান্ন থেকে ঢালাও চাকরির ঘোষনা করলেন তিনি। আজ মন্ত্রীসভার বৈঠকে অনুমোদনের পরই পুলিশ থেকে শুরু করে শিক্ষক নিয়োগের সবুজ সংকেত দিলেন তিনি। বুধবার নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে নিরাপত্তায় জোর দিয়ে রাজ্য পুলিশে আরও তিনটি নতুন ব্যাটেলিয়ন তৈরি করার পাশাপাশি কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতিতে শূন্য পদে নিয়োগ করা হবে শিক্ষকদেরও। নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান, ”কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হলে শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ শুরু হবে। ডিসেম্বর থেকেই ১৬ হাজার পদে নিয়োগ করা হবে টেট উত্তীর্ণদের। যাবতীয় নিয়মকানুন স্থির করে পরে জানাবে শিক্ষাদপ্তর।” এই মুহূর্তে উত্তীর্ণ টেট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা রাজ্যে ২০ হাজার। তাঁরাই নিয়োগে অগ্রাধিকার পাবেন। তবে আগামী বছর টেট পরীক্ষা হবে অফলাইনে, ইতিমধ্য়ে আড়াই লক্ষ আবেদনপত্র জমা পড়েছে বলেও জানান তিনি। পাশাপাশি এদিন আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য পুলিশে নতুন করে আরও তিনটি ব্যাটেলিয়ন তৈরি করা হবে। তাতেও নিয়োগ হবে কয়েকহাজার। পাহাড়ের নিরাপত্তায় গোর্খা ব্যাটেলিয়ন, জঙ্গলমহলের জন্য একটি ব্যাটেলিয়ন এবং কোচবিহারের নারায়ণী ব্যাটেলিয়ন তৈরির কথা তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন,” এই তিন ব্যাটেলিয়নে অন্তত ৩০০০ নিয়োগ হবে বলে। ” তবে কীভাবে, কবে থেকে নিয়োগ হবে, কারা সুযোগ পাবেন, সেসব রূপরেখা স্থির করার দায়িত্ব তিনি রাজ্য পুলিশের শীর্ষকর্তাদের উপরই ছেড়েছেন। পাশাপাশি আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের দিতে হবে না টেস্ট, নবান্ন থেকে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনা পরিস্থিতিতে ২০২১ সালে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য কোনও টেস্ট পরীক্ষা দিতে হবে না। প্রতিবছর নভেম্বরেই হয় মাধ্যমিকের টেস্ট। আর ডিসেম্বরে টেস্ট পরীক্ষা হয় উচ্চমাধ্যমিকের। কিন্তু করোনার কারণে চলতি বছরের মার্চ থেকে বন্ধ স্কুল। অনলাইন ক্লাস চললেও টেস্ট এখনও হয়নি। বুধবার নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের টেস্ট দিতে হবে না। সরাসরি ফাইনাল পরীক্ষায় বসতে পারবে ছাত্র-ছাত্রীরা।” কিন্তু প্রতিবারের মতো ফেব্রুয়ারির শেষভাগে মাধ্যমিক আর মার্চেই কি হবে উচ্চমাধ্যমিক? এপ্রশ্নের উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী জানান, “পরীক্ষা হবে। কিন্তু তা নির্দিষ্ট সময়েই সময় কি না, তা জানা নেই। কারণ এখনও স্কুল বন্ধ।” তবে কী সিদ্ধান্ত হচ্ছে তা শিক্ষাদপ্তর মারফত জানানো হবে বলে জানান তিনি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + 10 =

Back to top button