কলকাতা

“নীল রাসায়নিক” এর গোপন তত্ত্ব জানতে তদন্তের দাবী যুব মোর্চা সভাপতির।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: কি সেই নীল? যা দিয়ে আটকানো হল যুব মোর্চা কর্মীদের? এবার তা জানতে কেন্দ্রের কাছে তদন্তের দাবী জানালেন বিজেপি যুব মোর্চার সর্ব ভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। গতকালই নবান্ন অভিযানকে সামনে রেখে শহরে পা রাখেন তিনি। আজ এই কর্মসূচির প্রথম থেকেই রাজ্যের “কার্যকর্তা”দের সঙ্গে ছিলেন তিনি। অভিযোগ, আজকের যুব  মোর্চা সমর্থকদের আটকাতে বিশেষ এক ধরনের নীল বর্ণ রাসায়নিক ব্যবহার করে কলকাতা পুলিশ। যুব মোর্চার দাবী, এই প্রথম কোন রাজনৈতিক কর্মসূচী আটকাতে এই ধরনের “ব্লু কালার কেমিক্যাল”ব্যবহার করেছে পুলিশ। আর তাতেই নাকি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন রাজু ব্যানার্জী সহ কয়েকশো মোর্চা কর্মী-সমর্থক। আর তাই এই নীলচে রাসায়নিকের হাল হকিকত জানতে কেন্দ্র ও রাজ্যের কাছে তদন্তের দাবী জানালেন তেজস্বী। এদিন মুরলীধর সেন লেনে বিজেপির রাজ্য দফতরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন যুব মোর্চার সর্ব-ভারতীয় সভাপতি। তার বক্তব্য, ” আজ একটা রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে। কি সেই নীল রঙের রসায়নিক? এর ব্যবহারের ফলে আমাদের প্রচুর নেতা-কর্মী মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আমি রাজ্য সরকারের কাছে জানতে চাইছি কি ব্যবহার করা হয়েছিল তার জবাব দিতে হবে। আর কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে লিখিতভাবে দাবী জানাবো নীল রঙের কি  রসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছিল তা তদন্ত করে দেখা হোক।” পাশাপাশি এদিন দিলীপ ঘোষ, সৌমিত্র খা, নিশীথ অধিকারী, লকেট চট্টপাধ্যায় ও বাবুল সুপ্রিয়কে পাশে  বসিয়ে মমতা ব্যানার্জীকে একহাত নেন তেজস্বী সূর্য। বলেন,” উনি ভয় পেয়েছেন। এই ভয় ভাল। এর থেকেই নতুন বাংলা তৈরি হবে। আজ থেকে আমাদের সংঘর্ষ শুরু হল।” এদিন নবান্ন অভিযান  আটকাতে প্রায় ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয় শহর। স্বাভাবিকভাবে পুলিশের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। তেজস্বীর অভিযোগ,”আসলে পুলিশ এখন তৃণমূলের পুতুল আর গুন্ডায় পরিণত হয়েছে।” আগামীদিনে রাজ্যে বিজেপি সরকার আসবে বলে দাবী তেজস্বী সূর্য’র।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button