কলকাতা

নিউটাউনে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল যুগলের।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : স্বপ্ন ছিল একসাথে ঘর বাধার। দুজনেই দুজনকে কথা দিয়েছিল জীবনের শেষদিন পর্যন্ত একসঙ্গে থাকবেন। না আর সেই ঘর বাধা হল না। তবে শেষদিন পর্যন্ত একসঙ্গে থাকার ইচ্ছেটা পূরণ করলেন দীপায়ন ও মেধা। দুই পরিবারের মধ্যে কথাও হয়েছিল, বিয়ের দিনও ঠিক হয়েগিয়েছিল।  কিন্তু সময় পেরিয়ে জীবনের সেই অধ্যায় শুরুর আগেই সব শেষ। শনিবার রাতে  নিউটাউনে  পথ দুর্ঘটনায়  মৃত্যু হল যুগলের। স্থানীয় সূত্রে খবর,  স্কুটিতে করে সল্টলেক থেকে চিনার পার্কের দিকে যাচ্চিলেন তারা। পথেই  তাঁদের স্কুটিতে ধাক্কা মারে একটিলরি।  ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দু’জনের।  দেহ দুটি উদ্ধারের পর ঘাতক লরির খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ।  সেক্টর -৫ এর তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী ও  বরাহনগর স্পোর্টিং ক্লাবের ক্রিকেট টিমের ক্যাপ্টেন দীপায়ন মুখোপাধ্যায় শনিবার প্রেমিকা মেধা পালকে নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন।  তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী কর্মসূত্রে বেঙ্গালুরুতে থাকা মেধা  লকডাউনের আগে ছুটিতে বিরাটির বাড়িতে ফিরেছিলেন। ত্বে  বেঙ্গালুরুতে  ফিরতে না পারায় বাড়িতে  বসেই  “ওয়ার্ক ফ্রম হোম” করছিলেন।  সারাদিন ঘুরে, খাওয়া-দাওয়া করে রাতে ফেরার সময়েই দুর্ঘটনার মুখে পড়েন তাঁরা।  পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার সল্টলেকের  থেকে চিনারপার্কের দিকে যাওয়ার সময় বিশ্ববাংলা গেটের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। দীপায়ন, মেধার স্কুটির পিছনে একটি লরি আসছিল। আচমকাই লরিটি পিছন থেকে স্কুটিকে ধাক্কা মারে। দু’জন ছিটকে পড়েন রাস্তায়। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি পুলিশ অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে যায়। সেখানেই দু’জনকে  চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘাতক লরির খোঁজ চালাচ্ছে নিউটাউন থানার পুলিশ। পরিবারিক সূত্রে খবর, সামনের বছর দু’জনের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। কিন্তু তার আগেই এমন এক মর্মান্তিক পরিণতি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button