কলকাতা

আমাকে নোটিস কেন? অভিষেক মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চান: বাবুল সুপ্রিয়।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : ফের বিস্ফোরক বাবুল সুপ্রিয়। আবারও তার নিশানায় অভিষেক বন্দোপাধ্যায। মহালয়ার দিন ডায়মন্ডহারবারের সাংসদ সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে “অমানবিক” বলেন। যা নিয়ে রীতিমত হইচই পড়ে যায়। পাল্টা টুইট করেন বাবুল-সুপ্রিয়। যা নিয়ে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে দুই সাংসদ। এরই মধ্যে  বাবুল সুপ্রিয়কে আইনি নোটিস পাঠান অভিষেক। আর সেই প্রসঙ্গ তুলে বাবুলের পরমর্শ, “হয়তো মুখ্যমন্ত্রীর অমানুষিক পরিশ্রমের কথা বলতে গিয়ে ভুল করে ‘অমানবিক’ সেই ‘সত্যটি’ মুখ ফস্কে বেরিয়ে গেছে ! এইতো ব্যাপার  তার জন্য তো অভিষেক-বাবুমশাই বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইবেন – আমাকে নোটিস কেন? নাকি পিসি-ভাইপো সম্পর্ক বলে ‘তিনি’ দলের সব নিয়মের উর্ধে?” এমনকী  এদিন অভিষেকের বাংলা ভাষার ” জ্ঞান” নিয়েও বাবুলের কটাক্ষ,” অমানবিক আর অমানুষিক বা অতিমানুষিক শব্দগুলির মধ্যে যে আকাশ পাতাল তফাৎ আছে তা তো অভিষেকবাবুর জানা কথা তাই না?” মহালয়ার দিন অভিষেকের দেওয়া ভিডিও বার্তাকে কটাক্ষ করার পর তার ও মুখ্যমন্ত্রীকে অপমান করা হয়েছে বলে আদালতে যান অভিষেক। এদিন সেই প্রসঙ্গ টেনে বাবুল সুপ্রিয়। এমনকি আভিষেককে” হাসির খোরাক”না হওয়ার পরামর্শ দেন,  তিনি বলেন, ” মানলাম আমাকে আইনী নোটিস পাঠানো অভিষেকের অধিকার কিন্তু মানুষের হাসির খোরাক হবেন কি হবেননা সেটা তো পছন্দের ব্যাপার | ঠিক কিনা?? ” তবে শুধুমাত্র অভিষেকই নয়, এদিন কার্যত মুখ্যমন্ত্রীকেও ” অমানবিক” বলে আক্রমণ করেন আসানসোলের সাংসদ। তিনি বলেন,” তৃণমূল ‘করে’ যাঁরা ‘করে খায়’, তারা ছাড়া আর সারা বাংলা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী কে ‘অমানবিক বলে, বলছে ও ইতিহাসও চিরকাল বলবে | একশো কুড়িজনের বেশী বিজেপি কর্মীবন্ধুকে খুন করেছে দিদির তৃণমূল ! চুপটি করে সব দেখে গেছেন উনি – নৃশংসভাবে পুলিশকে অপব্যবহার করেছেন| এটাই তো সত্য ।” অভিষেক বন্দোপাধ্যাযকে যে তিনি খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছেন না তাও বুঝিয়ে দেন বাবুল।                                          ‘

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button