কলকাতা
Trending

রাজ্যের পুলিশ নিরপেক্ষ হলে আপনি আর ক্ষমতায় থাকবেন না: অধীর চৌধুরী।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: এর আগে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর পুলিশের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্র শ্ন তুলেছিলেন, এবার সেই পুলিশ প্রসঙ্গ টেনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে তীব্র কটাক্ষ করলেন লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী। বুধবার নিজের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন,” বাংলায় পুলিশ যেদিন নিরপেক্ষ হবে সেদিন এই বাংলায়  সত্যিই শান্তি নেমে আসবে। কিন্তু যেদিন পুলিশ নিরপেক্ষ হবে, সেদিন আপনি আর ক্ষমতায় থাকবেন না।” এই প্রথম নয়, এর আগেও পুলিশকে “দলদাস”এ পরিনত করা নিয়ে বিরোধীদের নিশানায় পড়তে হয়েছে তৃণমূল সরকারকে। এদিন ও একইভাবে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করে অধীর চৌধুরী বলেন, ” পুলিশ নিরপেক্ষ হলে তাদের এই রাজ্যে শাস্তি হয। আপনি বাংলার পুলিশের মেরুদণ্ড ভেঙে চুরমার দিয়েছেন।” এখানেই শেষ নয়, সার্বিকভাবে রাজ্য প্রশাসনের নিরপেক্ষতা নিয়েই প্রশ্ন তুলে অধীর চৌধুরী বলেন, ” আপনার দলের অ্যায়রি গ‍্যায়রি নেতাও পুলিশকে বাড়ির চাকর মনে করে। আপনার পুলিশ  পঞ্চায়েত ভোট করতে দেয়নি বাংলায়। খোলা মঞ্চে দাঁড়িয়ে ডিজি আপনার দালালি করছেন, আর আপনি তা উপভোগ করছেন। বুকে হাত দিয়ে বলুন তো, আপনি কী সত্যি চান পুলিশ নিরপেক্ষ হোক? নিরপেক্ষ হোক?” এক সময়ে বামেদের বিরুদ্ধে পুলিশ দিয়ে দল ও সরকার চালানোর অভিযোগ বারবার তুলেছে বর্তমান শাসকদল। এদিন তৃণমূল সরকারকে সেই অস্ত্রেই বিধলেন লোকসভার বিরোধীদলনেতা। তার বক্তব্য, ” আজ বাংলার প্রতিটি পুলিশ জানে দিদির দলের কৃপা না থাকলে প্রমোশন নেই। পুলিশ অফিসার বা জেলা শাসক-রাই আপনার পার্টির আসল নেতা, তাদের মাধ্যমেই আপনি পার্টি চালান।” মঙ্গলবার রাজ্যে পালন করা হল “পুলিশ দিবস”। এর পিছনেও আসলে ভোট রাজনীতি আছে বলে মত অধীর চৌধুরীর। আক্রমণের ঝাঝ বাড়িয়ে এদিন তিনি বলেন, ” আজ ভোট আসার আগে পুলিশকে আপনার বড্ড প্রয়োজন। তাই খাতির করতে হচ্ছে। ভালো নাট্যকার আপনি! আমরা জানি বাংলার পুলিশকে আপনি ‘তৃণমূল পুলিশ’-এ রূপান্তরিত করেছেন। সারা  ভারতবর্ষের আর কোনো রাজ্যে এমন নির্লজ্জ হস্তক্ষেপ নেই কোনও মুখ্যমন্ত্রীর।” এমনকি মুখ্যমন্ত্রী নিজেই “নিরপেক্ষ” প্রশাসন চান না বলে মন্তব্য করেন অধীর। বলেন, ” আপনারা নিরপেক্ষ হলে  বাংলায় নতুন ইতিহাস রচিত হবে। অবশ্য, এটাও সত্যি,  তিনি বাংলার পুলিশের নিরপেক্ষ হওয়ার সাধ চরিতার্থ হতে দেবেন না।”

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button