দেশ

ধর্ষণ নিয়ে বেলাগাম মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: বেগালাম গেরুয়া  শিবির। হাথরাসে মনীষা বাল্মীকির ঘটনায় ” রাম রাজ্যে” র  দুই বিজেপি নেতার বক্তব্যে সমালোচনার ঝড় দেশজুড়ে।  হাথরাস নিয়ে নিজের দলেরই  অস্বস্তি বাড়ালেন বালিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। হাথরাস নিয়ে সারা দেশজুড়ে যখন বিতর্ক চূড়ান্তে, ঠিক সেই সেই সময়  ধর্ষণ কীভাবে রুখতে হবে, সেই পাঠ দিয়ে গিয়ে উল্টে মেযেদেরই কাঠগড়ায় দাড় করালেন এই বিজেপি বিধায়ক।  তার মতে  মেয়েরা ‘সুশিক্ষা’ পায় না বলেই ধর্ষণ হচ্ছে। তাই  ধর্ষণ আটকাতে গেলে মেয়েদেরই “সুশিক্ষা” পেতে হবে। উত্তরপ্রদেশের হাথরসের ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে বিজেপি বিধায়ক  সুরেন্দ্র সিং-এর বক্তব্য, ‘এই ধরনের ঘটনা সংস্কারের সঙ্গে রোখা যাবে, শাসন বা তলোয়ার দিয়ে আটকানো যাবে না। সব বাবা-মা’র ধর্ম হল, নিজের কমবয়স্ক এবং যুবতী মেয়েদের সংস্কারের আবহে বড় করে তোলা। সংস্কারের মধ্যে শালীন ব্যবহার শেখানো উচিত।’   এখানেই শেষ নয়, এই ধরনের ধর্ষণের ঘটনায় সরকারের দায়ের থেকে উল্টে মেয়েদেরই দায়িত্ব অনেক বেশী বলে মনে করেন এই বিজেপি বিধায়ক। তার বক্তব্য,  ‘যেখানে সরকারের নিরাপত্তা দেওয়ার ধর্ম আছে, যেখানে পরিবারেরও দায়িত্ব হল নিজেদের বাচ্চাদের মধ্যে নীতিবোধ ঢুকিয়ে দেওয়া। সংস্কার এবং সরকারের মেলবন্ধনেই ভারতকে সুন্দর করে তোলা হবে। আর কোনও বিকল্প বিধান হতে পারে না।’ অপরদিকে  হাথরাস মনীষা বাল্মীকিকে ধর্ষণই করা হয়নি বলে মত  বারাবাকির বিজেপি নেতা রঞ্জিত সিংহ শ্রীবাস্তবের। উল্টে তার বক্তব্য,”ঘাস কাটতে বজরা ক্ষেতে কেন? ওখানে কোনোও ধর্ষণ হয়নি। প্রেমিকের সঙ্গে ধস্তাধস্তি আর মারামারি করতে গিয়ে কোমরের হাড় ভেঙেছে মনীষার।”  এমনকী ইতিমধ্যে মনীষার পরিবারকে যে আর্থিক অনুদান দেওয়ার কথা যোগী আদিত্যনাথের সরকার ঘোষনা করেছিল,তাও বন্ধ করে দেওয়া উচিত বলে মনে করেন ওই বিজেপি নেতা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button