দেশ

ধর্ষণ নিয়ে রাজনৈতিক পক্ষ- বিপক্ষ করবেন না: বাবুল সুপ্রিয়।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে ১৯ বছরের দলিত কিশোরী মনীষা বাল্মীকির উপর ঘটে যাওয়া পৈশাচিক ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যে রাজনীতি শুরু হয়েছে। একদিকে বিজেপি অপরদিকে কংগ্রেস-তৃণমূল সহ বাকী বিরোধীরা একে অপরকে দোষারোপ করতেই ব্যাস্ত। এমনকি গত কয়েকদিনে কোন রাজ্যে কজন মেয়ের উপর এই ধরনের জঘন্য অপরাধ হয়েছে, রাজনৈতিক আক্রমণ করতে গিয়ে তুলে আনা হচ্ছে সেই খতিয়ানও। কার্যত, ধর্ষন বা নির্যাতনের ঘটনা এখন রাজনৈতিক আক্রমণের” তীর” হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এরই মধ্যে এই ধরনের ঘটনা নিয়ে কোনও রাজনীতি না করতে অনুরোধ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল-সুপ্রিয়। শুক্রবার এই নিয়ে একটি ভিডিও বার্তা টুইট করেন তিনি। তিনি বলেন, “এই ধরনের অপরাধকে রাজনৈতিক কাউন্টার বানাবেন না। উত্তরপ্রদেশের ঘটনা নিয়ে একে অপরকে আক্রমণ করতে গত দুদিনে আমাদের রাজ্যে এই ধরনের ঘটনা কটা ঘটেছে, উত্তরপ্রদেশ বা রাজস্থানে কতগুলো এই ধরনের অপরাধ হয়েছে তা রাজনৈতিক পক্ষ-বিপক্ষ করতে গিয়ে ব্যবহার করবেন না। পুরোটাই মানবিকভাবে দেখুন। এই নিয়ে রাজনৈতিক পক্ষ-বিপক্ষ হয় নাকি? ” এখানেই শেষ নয়। এই ধরনের ঘটনার বিরুদ্ধে সমস্ত রাজনীতি ভুলে একসঙ্গে লড়াই করার বার্তাও দেন তিনি। বলেন,”রাজনীতি না করে এই ধরনের মানবতার অপরাধের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়তে হবে।” ইতিমধ্যে হাথরাসের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজে হস্তক্ষেপ করেছেন, তা মনে করিয়ে দিয়ে বাবুল বলেন,” ইতিমধ্যে এই ঘটনায় জড়িত সবার যাতে কঠিন শাস্তি হয়, তারজন্য প্রধানমন্ত্রী নিজে আদিত্যনাথজির সঙ্গে কথা বলেছেন সিট গঠিত হয়েছে।” এর আগেও নির্ভয়া সহ একাধিক এই ধরনের অপরাধে অভিযুক্তদের ফাসির মত কঠোর শাস্তি হলেও এই ধরনের অপরাধ আদৌ হ্রাস পায়নি। তাও মনে করিয়ে দেন তিনি। রাহুল-প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর পর হাথরাসে নির্যাতিতর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে আজ পুলিশের হাতে আক্রান্ত হন ডেরেক ও’ব্রায়েন। তা নিয়ে বাবুলের বক্তব্য,” ডেরেকের কোনও দরকার ছিল না ওখানে যাওয়ায়। কী করতে গিয়েছিলেন? আমার লোকসভা কেন্দ্র আসানসোলে যখন রায়ট লাগল। আমায় পুলিশ ঘর থেকে বেরোতে বারন করেছিল, আমি কথা শুনেছিলাম।” তবে এই ধরনের অপরাধ নিয়ে রাজনীতি করা ঠিক নয় বলে মত বাবুল-সুপ্রিয়র।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button