দেশ

রাজ্যে যতগুলো জঙ্গি ধরা পড়েছে তা কেন্দ্রীয় সংস্থাই ধরেছে: দিলীপ ঘোষ।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক: ফের বিতর্কে দিলীপ ঘোষ। এ যেন অনেকটা ছিল বেড়াল হয়ে গেল রুমার গোছের ব্যাপার। সোমবার রাজ্যে জঙ্গিদের “বাড়বাড়ন্ত” নিয়ে বাংলার সরকারকে আক্রমণ করতে বিতর্ক বাড়ালেন দিলীপ ঘোষ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মুখ্যমন্ত্রী বলে রীতিমত হাসির খোরাক হলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। রবিবার মুর্শিদাবাদ থেকে এনআইএর হাতে আল কায়দার জঙ্গি সন্দেহে ধরা পড়েছে ধরা পড়েছে ৬ জন। আর এই ইস্যুতেই বিরোধীদের নিশানায় রাজ্য। বাংলার আইনশৃঙ্খলা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। এ নিয়ে সুর চড়ান বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। আল কায়দা জঙ্গি গ্রেপ্তারি প্রসঙ্গেই এদিন নিজের বক্তব্য শুরু করেন দিলীপ ঘোষ । তিনি বলেন, “রাজ্যে যতগুলো জঙ্গি ধরা পড়েছে তা কেন্দ্রীয় সংস্থাই ধরেছে। দুর্নীতির তদন্ত করতে সিবিআই যখন গিয়েছে তখন তাঁদের ধরে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী নিজে অফিসারকে আড়াল করেছেন। খাগড়াগড় বিস্ফোরণ, শিমুলিয়া মাদ্রাসায় জঙ্গি কার্যকলাপ হলেও তদন্ত করতে দেয়নি। একাধিক জায়গায় এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। পিংলায় হয়েছে। অতি সম্প্রতি নৈহাটিতে বড় বিস্ফোরণ হয়েছে। তবে তার তদন্ত হয়নি। রাজ্য সরকার সব চেপে দেওয়ার চেষ্টা করছে। কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে কাজ করতে দিচ্ছি। তাই যারা জঙ্গি কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত তারা বুঝে গিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ নিরাপদ জায়গা। এখানে এসে যা ইচ্ছা তাই করো কেউ বাধা দেবে না।” এতদূর পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। স্বমেজাজে রাজ্য সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করছিলেন তিনি। তবে তারপরই তাঁর মন্তব্যে তৈরি হল বিতর্ক। কারণ, তিনি বাংলার সরকারকে আক্রমণ করতে গিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘মুখ্যমন্ত্রী’ বলে বসেন। বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদের মন্তব্য নিয়ে বিভিন্ন মহলে চলছে জোর আলোচনা। রাগের বশে হয়তো এমন কাজ করে ফেলেছেন বলেও মন্তব্য করছেন কেউ কেউ। তবে এ বিষয়ে গেরুয়া শিবিরের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায়নি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button