দেশ

মুম্বইতে নিরাপদ নই, কঙ্কণার অভিযোগ রাজ্যপালের কাছে।

নিউজ বেঙ্গল ৩৬৫ ডেস্ক : মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে লড়াইটা আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে গেলেন কঙ্গনা রানাউত। আজ বিকেলে মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎসিংহ কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করলেন তিনি। সূত্রের খবর,  মুম্বইতে তিনি আদৌ নিরাপদবোধ করছেন না। সুশান্ত সিংহ রাজপুত-কাণ্ডে মুখ খোলার জন্যই তাঁকে হেনস্থার শিকার হতে হচ্ছে। তাঁকে নিশানা করা হচ্ছে। রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠকে উদ্ধব সরকারের নাম না করেও একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ কঙ্গনা রানাওয়াত। মুম্বইয়ের পালি হিলে কঙ্গনার অফিসের একাংশ ভাঙা এবং তা ঘিরে তীব্র সঙ্ঘাতের পরিস্থিতি নিয়ে ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের মুখ্য পরামর্শদাতা অজয় মেহতাকে তলব করেছিলেন কোশিয়ারি। মেহতাব-রাজ্যপাল বৈঠকের পরই আজ কঙ্কনাও রাজ ভবনে যান।যদিও রাজ্যপালের সঙ্গে তার ঠিক  কী কথা হয়েছে, তা উল্লেখ না করলেও বৈঠকের শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে উদ্ধব সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। কঙ্গনার দাবি, ‘‘সুশান্ত-কাণ্ডে মুখ খোলার জন্যই আমাকে নিশানা করা হচ্ছে। হেনস্থা করা হচ্ছে আমাকে। আমি এখানে নিরাপদ নই।’’ সেই সঙ্গে তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘‘মুম্বই আমার কর্মস্থল। আমাকে এখান থেকে উপড়ে ফেলা যাবে না।’’ তবে এর মধ্যে কঙ্কণার পাশে এসে দারিযেছে এক সময় তারই  পুরনো ‘শত্রু’ করণী সেনা।  যদিও বছর দুয়েক আগে ‘মণিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ ফিল্মের জন্য করণী সেনার রোষের মুখে পড়েছিলেন কঙ্গনা। তবে সে সব অতীতের গর্ভে ঠেলে নয়া প্রেক্ষাপটে কঙ্গনারই ‘সাহায্যদাতা’র ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে করণী সেনাকে। তাঁর সমর্থনে ইতিমধ্যেই গোরক্ষপুরে মিছিল বার করেছে সংগঠনটি। পাশাপাশি মহারাষ্ট্র সরকার বনাম কঙ্গনা রানাউতের ‘দ্বন্দ্বে’ তাঁরা যে অভিনেতার দিকেই ঝুঁকে রয়েছেন, তা-ও ফের স্পষ্ট করল করণী সেনা। এ দিন মুম্বইয়ে কঙ্গনার বাড়িতে গিয়ে ওই কট্টরপন্থী সংগঠনের আশ্বাস, শহরে তাঁর নিরাপত্তার দিকেও খেয়াল রাখবেন তারা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button