দেশ

লাদাখে চীনা ট্যাঙ্কের দিকে নিশানা তাক করে রয়েছে ভারতীয় ট্যাঙ্ক।

নিউস বেঙ্গল 365 নিউদিল্লী:  সেপ্টেম্বরের প্রথম দিন থেকেই লাদাখে উত্তেজনা বাড়তে শুরু করেছে। গত ২৯ ও ৩০ অগাস্টের রাতে লাদাখে চীনা সেনার আগ্রাসনকে কড়া হাতে দমন করে মোক্ষম জবাব দিয়েছে ভারত। পিছু হটতে বাধ্য হয় চীনা সৈন্যরা। তারপর থেকেই রাগে ফুঁসছে চীন। এহেন পরিস্থিতিতে লাদাখে ক্রমেই উত্তেজনা বাড়ছে।প্যানগংয়ের দক্ষিণ সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশ করেছিল চীনের সেনা। ৩০ অগাস্টের রাতে চীনের এই পদক্ষেপের আগাম আঁচ করে ভারতীয় সেনা চীনকে মোক্ষম জবাব দিতে দেরি করেনি। সেই রাতে মূলত প্যানগংয়ের কাছে উঁচু এলাকা দখল করাই চীনের লক্ষ্য ছিল বলে খবর। ৩১ অগাস্ট থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেত বারবার বৈঠকে বসেন দুই দেশের উচ্চপদস্থ সেনাকর্তারা। তবে তাতেও যে লাদাক-বরফ গলেনি , আজ সকালের চিত্র তার প্রমাণ দিয়ে দিয়েছে।লাদাখ এলাকায় চীন হালকা ওজনের যুদ্ধ ট্যাঙ্ক মোতায়েন করেছে। জানা গিয়েছে, লাদাখের স্প্যানগ্গুর সো ও চুশুলের মাঝে মোতায়েন রয়েছে ভারতীয় ট্যাঙ্ক। সীমানায় মজুত সশস্ত্র সেনা চীনা ট্যাঙ্কের দিকে নিশানা তাক করে রয়েছে। আর সেই অবস্থান ঘিরেই লাদাখে পারদ চড়েছে।  সোমবার রাতেই সেখানে উঁচু একটি জায়গা দখলে নিয়ে ফেলে ভারত। সেখান থেকে চীনের গতিবিধির ওপর নজরদারিতে সুবিধা পেয়ে গিয়েছে ভারতীয় সেনা। অন্যদিকে, কালাটপের্ নিচে প্রায় ৫০০ লালফৌজ সেখানে ওত পেতে বসে রয়েছে। ট্রেকিং করে সেখানো পৌঁছেছে সেখানে  চীনাবাহিনী। তবে ভারতীয় সেনার প্রস্তুতি দেখে আর এগোনোর সাহস পায়নি চীনা ফৌজ। ভারতীয় সেনা যদিও নজর রাখছে সেদিকে।চীনা ফৌজকে মোকাবিলা করতে ভারত সমস্ত রকম প্রস্তুতি নিয়েছে। ভারতীয় সেনার অস্ত্রভাণ্ডারের মাথায় নতুন পালক রাফালে এখনও নামেনি লাদাখের ময়দানে। চীন জে ২০ নিয়ে লাদাখ সীমান্তে ওড়ার জবাবে ভারত মিরাজ ২০০০ , সুখোই ৩০ এমকেআই, জাগুয়ার মোতায়েন করেছে। 

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button